মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৭:৩৩ পূর্বাহ্ন

নোটিশ
মদিনা কন্ঠ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এর জন্য দেশের সকল জেলা উপজেলায় সংবাদদাতা আবশ্যক।
সর্বশেষ খবর
পটুয়াখালী জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত সভাপতি রফিকুল সম্পাদক হাসান আলী বরিশালে বাস ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৬ মসজিদে নববীতে মুসল্লিদের নামাজ আদায়ের রেকর্ড প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে তুরাগের বিশাল ময়দান জুড়ে চলছে জোর প্রস্তুতি। শরীফার গল্প’ নিয়ে বিভ্রান্তি থাকলে পরিবর্তন হবে: শিক্ষামন্ত্রী বিদেশি শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে কানাডা বরিশালের হিজলায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে আ. লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৭ ঝালকাঠি স্বেচ্ছা‌সেবক দলের সভাপতি আরিফ তালুকদারের বসতঘরে আগুন হিজলায় বিএনপির কারাবন্দী নেতাদের পরিবারের পাশে দাড়ালেন এম হেলাল উদ্দিন । প্রতিটি নতুন সকালেই কল্যাণের ফুল ফোটে

শরীফার গল্প’ নিয়ে বিভ্রান্তি থাকলে পরিবর্তন হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শরীফার গল্প

অনলাইন ডেস্ক:: পাঠ্যবইয়ে আলোচিত শরীফার গল্প নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে, কোনো বিভ্রান্তি থাকলে পরিবর্তন হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দফতরে ঢাকায় নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত ম্যারি মাসদুপুইয়ের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ব্র্যাকের বিতর্ক প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আলোচনা করবো। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের মাধ্যমে ঘটনাটি কি ঘটেছিল, তা আলোচনা করবো। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আমরা একটি ভিডিও দেখেছি।

শরীফা গল্পটি নিয়ে গতবারও বিতর্ক উঠেছিল, এবার শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, সেটা জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডে (এনসিটিবি) যারা সহকর্মীরা আছেন তাদের সঙ্গে আলোচনা করবো। যদি একটি গল্প নিয়ে প্রতিক্রিয়া হয়, কেন হচ্ছে সেটাও খতিয়ে দেখতে হবে। আমাদের দেশে একটি গোষ্ঠীর ধর্মকে ব্যবহার করে অরাজকতা ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি করার একটি প্রবণতা আছে। গতবছরও সেটা ছিল। একটি সংগঠন থেকে কিছুদিন আগে আমার কাছে কিছু সুপারিশ দেওয়া হয়েছিল, কওমি মাদরাসার কিছু শিক্ষক এসেছিলেন। সেখানে তারা দাবি করেছেন যে এখানে ট্রান্সজেন্ডার শব্দটা ব্যবহার করা হয়েছে। বিভ্রান্তি সৃষ্টির বিষয়টি তারা আমাদের নজরে এনেছিলেন। আমরা যখন আলোচনা করেছি তখন দেখেছি শব্দটা ট্রান্সজেন্ডার নয়, শব্দটা থার্ড জেন্ডার।

‘সেটা তো আইনত স্বীকৃত যে তৃতীয় লিঙ্গ যাদের সমাজে হিজড়া নামে পরিচিত। তাদের দেশের নাগরিক। তাদের নাগরিক অধিকার রয়েছে। তবে গল্প উপস্থাপনার ক্ষেত্রে যদি এমনভাবে উপস্থাপন হয়ে থাকে যেখানে এ ধরনের বিভ্রান্তি এবং বিতর্ক সৃষ্টির প্রয়াস থেকে থাকে তাহলে এ গল্পের উপস্থাপনা পরিবর্তন করা যায় কিনা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করবো। তাদের প্রতি সম্মান রেখে উপস্থাপনের ক্ষেত্রে যদি ভিন্ন কোনো সুযোগ থাকে তাহলে সে বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা মতামত দেবেন। এটা যেহেতু বিশেষায়িত বিষয়। আমরা পলিসি লেভেল সেটি মন্তব্য করতে চাই না।’


© All rights reserved ©  madinakantho.Com
Design & Developed BY Rahmatullah Palush