শনিবার, ৩১ Jul ২০২১, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

নোটিশ :
দেশ-বিদেশের সকল আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন অনলাইন ভার্সন ‘দৈনিক মদিনা কন্ঠ’ ধন্যবাদ।
ব্রেকিং নিউজ :

মেহেন্দিগঞ্জে কলাগাছ খাওয়ার জেরে দুটি গরু নির্মমভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত করলো মেম্বারের ছেলে।

আন্ধারমানিক ইউনিয়ন

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আন্ধারমানিক ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের লিটন মেম্বার এর ছেলে রাহাত‘র অপকর্মের শেষ কোথায়?  মঙ্গলবার (১৫ জুন) দুপুরে সামান্য কলাগাছ খাওয়ার জের ধরে দুটি গরু কে নির্মমভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত করলেন রাহাত। রাহাত বাবার মেম্বারী ক্ষমতার বলে এলাকাও ধাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। চালিয়ে যাচ্ছেন নানা অপকর্ম।

জানা যায়, মো: মামুন আকন (৩৫) ও মকবুল আকন (৭০) এর দুটি গরু বিলের পাশে বেধে রাখেন, দুপুরে মামুন আকনের স্ত্রী গরু আনতে গেলে গরু না পাওয়ায়, পাশেই লিটন মেম্বার এর কলা বাগানে একটি গরু রক্তাক্ত অবস্থায় এবং আরেকটি গরুকে রাহাত ধারালো দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কোপ দিচ্ছে। আমি ভয়তে ওখানে না গিয়ে সাথে সাথে আমার স্বামী মামুন কে জানাই। খবর পেয়ে গরুটিকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। তাৎক্ষণিক পশু চিকিৎসক মো: মনির ডাক্তারকে জানালে , তিনি একটি গরুকে ৮ টি সেলাই এবং অপর গরুটির দুই স্থানে ৪টি-২ টি সেলাই ও চিকিৎসা দেন।

মামুন আকন জানান, সামান্য কলাগাছ খাওয়া জের ধরে আমাদের দুটি গরু কে কুপিয়ে রক্তাক্ত করলো রাহাত। আমি লিটন মেম্বার এর কাছে গিয়ে জানতে চাইলে সে বলে কলাগাছ খাইছে আমার ,আবার বিচারও দিতে আইছো। যা তুই পারলে গিয়ে কিছু কর। মামুন আকন আরো জানান, আমার ১টি গরুর দাম আনুমানিক ৫০ হাজার ও আরেক টি গরুর দাম ৪০ হাজার টাকার মতো।

আন্ধারমানিক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কাজী শহিদুল ইসলাম জানান, মামুন আকন আমার কাছে এসে তার বিষয়টি জানিয়েছে । তবে জীবিত একটি পশুকে এভাবে রক্তাক্ত করা কোনো মানুষের কাছে শোভা পায়না। মানুষ হলে এ কাজটি করতে পারেনা। এটি জগন্যতম কাজ এ ঘটনার তিব্র নিন্দা জানান তিনি।

মন্তব্য প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। প্রকাশিত লেখাটির আইনগত, মতামত বা বিশ্লেষণের দায়ভার সম্পূর্ণরূপে লেখকের । মদিনা কন্ঠ-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এসব মন্তব্যের কোনো মিল নাও থাকতে পারে। লেখকের নিজস্ব মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার “মদিনা কন্ঠ‘র কর্তৃপক্ষ ” নেবে না।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮ - ২০২১.  মদিনা কন্ঠ
Design & Developed BY Rahmatullah Palush
error: Content is protected !!