শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৬:২৩ অপরাহ্ন

নোটিশ :
দেশ-বিদেশের সকল আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন অনলাইন ভার্সন ‘দৈনিক মদিনা কন্ঠ’ ধন্যবাদ।
ব্রেকিং নিউজ :
বরিশাল বেলতলা পল্টুন থেকে নদীতে পড়ে যুবক নিখোঁজ সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক আলী আশরাফ আর নেই। বাঁশখালীতে দাওয়াতুন্নবী (স.) সংস্থার উদ্যোগে দুস্থ ও অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরন গলাচিপায় রুহুল হত্যার ৩৩ দিন পরে প্রধান দুই আসামি গ্রেপ্তার লকডাউন এর সপ্তম দিনে ও আগৈলঝাড়ার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা। হিজলায় প্রয়াত শফিউল বারী বাবুর মৃত্যুবার্ষিকী পালিত। মেয়ে হয়েও করোনা আক্রান্ত রোগীকে বাঁচাতে নৌকায় অক্সিজেন নিয়ে ঝালকাঠির ঐশী উজিরপুরে মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে হত্যা, আহত ৪ সিলেটে করোনায় ১২ জনের মৃত্যু: আক্রান্ত ৬৬০ জন ঈশ্বরগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় শূন্য বসত ভিটা

ফেয়ার হেলথ হাসপাতালে অপারেশনের সময় নব জাতকের মাথা কেটে ফেলেন ডাক্তার।

ফেয়ার হেলথ হাসপাতাল

ফারুক আহমদ,সিলেট:: সিলেট নগরীতে মীরের ময়দানে ফেয়ার হেলথ প্রাইভেট হাসপাতালে সিজার করার সময় নবজাতকের মাথা কেটে ফেললেন গাইনী বিভাগেরসার্জারী ডাক্তার মো: আব্দুস সবুর।আজ বুধবার ০৯ ডিসেম্বর সিলেট নগরীর মীরের ময়দান অর্ণব ৭৪/ অবস্হিত ফেয়ার হেলথ হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বর্তমানে ওই নবজাতকটি আশংকাজনক অবস্হায় হাসপাতালের বিছানায় যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে।

এই ঘটনায় ডাক্তার শুধু শিশুর মাথা কেটেই যে অপেশাদারিত্বের পরিচয় দেন তা নয় বরং বিষয়টি শিশুর অভিভাবকদের কাছ থেকে লুকানোরচেষ্টা ও তিনি করেছেন ডাক্তার ও ফেয়ার হেলথ হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্সরা।

জানা গেছে, নগরীর মীরা বাজারের বাসিন্দা প্রবাসী ফারুক আহমদের স্ত্রী মোছা: শুকরিয়া বেগমের প্রসব ব্যথা উঠলে ডাক্তারের পরামর্শে নগরীরফেয়ার হেলথ হাসপাতালে ভর্তি হন। বুধবার দুপুরে শুকরিয়ার অপারেশন করেন গাইনি বিভাগের সার্জন ডাক্তার আব্দুস সবুর। অপারেশনেরসময় তিনি নবজাতকের মাথার পেছনদিকে ছুরি দিয়ে বেশ গভীরভাবে কেটে ফেলেন ফলে শিশুটির খুব বেশী রক্তপাত হয়। জন্মের শিশুটিকে অবিরত কান্না করতে দেখে মা দুধ পান করাতে চাইলে শিশুকে দূরে সরিয়ে রাখেন ডাক্তার ও কর্তব্যরত নার্সরা।তখন একরকম জোর করে শিশুকেমার কাছে নিয়ে আসলে মাথার পেছন দিক রক্তাক্ত দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন শুকরিয়া বেগম।

প্রবাসী ফারুক আহমদের মামাতো ভাই মো: ইজ্জাদুর রহমান মুন্না জানান, আমাদের কাছ থেকে প্রথমে বিষয়টি লুকানোর চেষ্টা করেন ডাক্তার ওনার্সরা। পরে আমরা দেখে ফেললে আমাদেরকে তারা সান্তনা দেয়ার চেষ্টা করেন।

তিনি বলেন আরো বলেন, শিশুর মাথার পেছন দিকে বেশ গভীরভাবে অনেকটাই কেটে গেছে। আরেকটু কেটে গেলে হয়তো ওর প্রাণটাই হুমকিরসম্মুখীন হয়ে পড়ে যেতো। মানুষ বাধ্য হয়ে ডাক্তারদের শরাণাপন্ন হন,কিন্তু দু:খের বিষয় অনেক চিকিৎসক শুধু টাকা পয়সাকে ই প্রাধান্য দিয়ে নব জাতক শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ এমনকি সব বয়সি মানুষের জীবননিয়েই তারা ছিনিমিনি খেলেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান ইজ্জাদুর রহমান মুন্না। এ বিষয়ে ফেয়ার হেল্থ হাসপাতালের কর্মকর্তা রিসিপশনিস্ট দোলন চৌধুরী জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, এটি একটি অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনা। ঘটনার পরপরই হাসপাতালের ব্যবস্থাপকসহ ঊর্ধ্বতম কর্মকর্তারা শিশুকে দেখে গেছেন এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন।

শিশুর অভিভাবককে বষয়টি লুকানোর অভিযোগের বিষয়ে আব্দুস সবুর বলেন, এই অভিযোগ সত্য নয়। সামান্যই কেটেছে এবং শিশুটির অবস্থাভালো। তারপরেও আমরা আলাদা শিশু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দিয়ে ট্রিটমেন্ট করাচ্ছি।

মন্তব্য প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। প্রকাশিত লেখাটির আইনগত, মতামত বা বিশ্লেষণের দায়ভার সম্পূর্ণরূপে লেখকের । মদিনা কন্ঠ-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এসব মন্তব্যের কোনো মিল নাও থাকতে পারে। লেখকের নিজস্ব মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার “মদিনা কন্ঠ‘র কর্তৃপক্ষ ” নেবে না।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮ - ২০২১.  মদিনা কন্ঠ
Design & Developed BY Rahmatullah Palush
error: Content is protected !!