রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৪:০২ অপরাহ্ন

নোটিশ
দেশ-বিদেশের সকল আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন অনলাইন ভার্সন ‘মদিনা কন্ঠ ’ ধন্যবাদ। দেশব্যাপি সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে । 
ব্রেকিং নিউজ :
হিজলায় বিষাক্ত সাপের কামড়ে আহত ইউএনও’র কন্যা। কুরআন- সুন্নাহর আলোকে জাতিকে নির্দেশনা দেয়া আলেম সমাজের দায়িত্ব ও কর্তব্য ইসলামী ছাত্র আন্দোলন এর দশমিনা থানা শাখার ২০২৩ সেশনের কমিটি গঠন । বিশ্বনাথে গোয়াহরি বিলে ঐতিহ্যের পলো বাওয়া উৎসব পালিত বিজয় সাহিত্য সম্মাননা পুরুস্কার পেলেন-কবি রবীন্দ্রনাথ মন্ডল নড়াইলে আগুনে পুড়ে মারা গেছে পাঁচটি গরু হিজলায় এশিয়ান টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত। মানত করার পর তা পূরণ করতে ভুলে গেলে করণীয় উপায় বরিশালে নৌ-পুলিশের অভিযানে ২১০ কেজি জাটকা জব্দ হাজারো মানুষের শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় চিরনিন্দ্রায় শায়িত আ’লীগ নেতা দলিলুর রহমান সিকদার

নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

ধর্ষণ-Rape

অনলাইন ডেস্ক:: মাদারীপুরে ইজিবাইকের গতিরোধ করে নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গুরুতর অবস্থায় ওই কিশোরীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এরইমধ্যে অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

বছরের প্রথমদিন শ্রেণিকক্ষে পাঠদান করার কথা থাকলেও নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছে ১৪ বছর বয়সী ওই কিশোরী। তার চোখেমুখে এখন শুধুই ভয়।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, অষ্টম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার ভালো ফলাফল করায় শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে মিষ্টি নিয়ে ইজিবাইকে করে নিজবাড়ি থেকে রাজৈরের শাখারপাড় নানাবাড়িতে যাচ্ছিল ওই কিশোরী। মাঝপথে অপর একটি ইজিবাইকে এসে রাব্বি ও হাসান নামে দুই তরুণ স্কুলছাত্রীর ইজিবাইকের গতিরোধ করেন। পরে জোর করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় রাজৈর উপজেলার কবিরাজপুরের একটি নির্জন স্থানে। এরপর রাব্বি ও হাসান পালাক্রমে ধর্ষণ করেন ওই ছাত্রীকে।

এতে করে গুরুতর অসুস্থ হলে পড়লে পালিয়ে যান অভিযুক্তরা। অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্বজনরা এক ভ্যানচালকের সহযোগিতায় স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১১টার দিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এদিকে, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত রাব্বি ও হাসান পলাতক আছেন।

নির্যাতিতা স্কুলছাত্রীর মা বলেন, আমার স্বামী ঘটনা শোনার পর হার্ট অ্যাটাক করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। একসঙ্গে দুটি ঘটনা মেনে নিতে পারছি না। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. শাওলীন আফরোজা বলেন, মেয়েটির অবস্থা গুরুতর। তার শরীর থেকে প্রচুর রক্তপাত হয়েছে। এখনো চিকিৎসা চলছে।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আলাউল হাসান বলেন, এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এরইমধ্যে ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ গিয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, প্রথমে মেয়েটির চিকিৎসা দরকার। শিক্ষার্থীর পরিবার অভিযোগ দিলে মামলা রেকর্ড করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ টি আপনার বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন:-


© All rights reserved © 2018 MadinaKantho.com
Design & Developed BY Madina Kantho
error: Content is protected !!