বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

নোটিশ :
দেশ-বিদেশের সকল আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন অনলাইন ভার্সন ‘দৈনিক মদিনা কন্ঠ’ ধন্যবাদ।

দ্বিতীয়বার মালয়েশিয়ার মাসার ভিপি হলেন বাংলাদেশি বশির।

বশির ইবনে জাফর

অনলাইন ডেস্কঃ- ২০২১ ‍শিক্ষাবর্ষের ছাত্রসংসদ নির্বাচনে সাত প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে ৮১৩ ভোটে জয়ি হয়েছেন তিনি। এরমধ্যে মোট ভোট সংখ্যা ১৭৯২। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পেয়েছে ৪০৭ ভোট। এছাড়াও বশির ইবনে জাফরের প্যানেলের ৬ জনের মধ্য থেকে ৫ জনই বিজয়ী হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদের মধ্যে, প্রেসিডেন্ট পদে উফাফ, ওয়েলফার ব্যুরো পদে ফয়সাল সাদিক, স্পোর্টস ব্যুরো পদে সোহান, সোশাল ব্যুরো পদে আফিকা।

জয়ের অনুভূতি জানতে চাইলে বশির ইবনে জাফর গণমাধ্যমকে বলেন, আমাকে সাপোর্ট দেয়ার জন্য প্রথমত সকল বাংলাদেশি শিক্ষার্থী, মালয়েশিয়ান এবং বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীবৃন্দসহ দূর থেকে দেশ-বিদেশের সকল প্রিয় মানুষদের আন্তরিক শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাচ্ছি। এ বছর নির্বাচনে জয়ী হওয়াটা ছিলো অনেক কঠিন। তাছাড়া ফলাফল পেতে অনেক দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়েছে। ফলাফল প্রকাশ নিয়ে কিছুটা শঙ্কাও ছিলো। সবকিছুর পর কাঙ্ক্ষিত ঘোষণাটি শোনা অবশ্যই আনন্দায়ক। আমি কৃতজ্ঞ আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং সর্বস্তরের স্টাফদের প্রতি।

মালয়েশিয়ার প্রধান প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ডাকসুর মতো স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল (এসআরসি) নির্বাচনের আয়োজন করা হয় প্রতিবছর। স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেসিডেন্ট পদটি সংরক্ষিত রাখা হয়। বাকি আরো ৮ টি পদ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আয়োজন করে এই এসআরসি নির্বাচন। ২০২১ সেশনের জন্য অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বশিরসহ আটজন।

বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রকৌশল বিভাগে অধ্যয়নরত বশির ইবনে জাফরের বাড়ি কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। কওমি মাদরাসা ও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি কুরআনের হাফেজও। রাজধানীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাসের পর স্কলারশিপে মালয়েশিয়ায় পড়াশোনার করতে যান বশির ইবনে জাফর।

তিনি দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থাকাকালীন পীর সাহেব চরমোনাই পরিচালিত ছাত্র সংগঠন, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পূর্বের স্কুল বিষয়ক সম্পাদকের দায়ীত্ব ও পালন করেন। তাঁর বিজয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের ঢাকা মহানগর ও কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাকর্মীরা। তাঁরা বশির ইবনে জাফরের বিজয়ে আনন্দিত ও গর্বিত।

মন্তব্য প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। প্রকাশিত লেখাটির আইনগত, মতামত বা বিশ্লেষণের দায়ভার সম্পূর্ণরূপে লেখকের । মদিনা কন্ঠ-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে এসব মন্তব্যের কোনো মিল নাও থাকতে পারে। লেখকের নিজস্ব মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার “মদিনা কন্ঠ‘র কর্তৃপক্ষ ” নেবে না।








© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮ - ২০২১.  মদিনা কন্ঠ
Design & Developed BY Rahmatullah Palush
error: Content is protected !!